নতুন চুল গজানোর উপায়,চুল পড়া বন্ধ ও নতুন চুল গজানোর উপায়,টেকো মাথায় চুল,চুল গজানো,চুল ঘন করার উপায়

  

টাক মাথায় কি নতুন করে চুল গজানো সম্ভব? কী করলে চুল পড়ে যাওয়া জায়গায় আবার চুল গজাবে?

বর্তমান সময়ে অনেকেই জানেন না নতুন চুল গজাতে কতদিন সময় লাগে। যদি চুল পড়ে যায় সেই জায়গায় চুল গজানোর সম্ভব হতে পারে আবার নাও পারে। চুল পড়ে গেলেও চুলের গোড়ায় যদি পর্যাপ্ত পুষ্টি থাকে সেক্ষেত্রে কিছুদিন পর নতুন চুল গজানোর সম্ভবনা থাকে।

নিচে বিভিন্ন উপায়গুলো জানামাত্র আপনার টাক মাথায় বা কপালে চুল গজানো সম্ভব হতে পারে। চলুন জেনে নেই কপালে নতুন চুল গজানোর সবচেয়ে সেরা উপায় নিয়ে-

টেকো মাথায়ও গজাবে চুল, টাক মাথায় চুল গজানোর উপায়,টেকো মাথায় গজাবে চুল

নতুন চুল গজাতে কতদিন সময় লাগে

আপনার কপালে চুল গজানোর জন্য খাদ্যাভ্যাস পরিবর্তন করা দরকার। সে জন্য আপনাকে ভিটামিন সি, জাতীয় ফল বেশি করে খেতে হবে। যেমন-

আরো পড়ুন: দ্রুত বীর্য পাতের ইসলামিক চিকিৎসা,দ্রুত বীর্য পাতের স্থায়ী চিকিৎসা ওষুধ

  • লেবু টক ফল
  • কমলা
  • মালটা
  • আঙুর
  • পেঁপে
  • আনারস
  • জাম ইত্যাদি

এগুলো ফল নিয়মিত খেলে চুল পড়াও কমবে পাশাপাশি নতুন চুল গজানোর সম্ভাবনা বেশি থাকে।

নতুন চুল গজাতে কি ব্যবহার করবো

অনেকের মাথায় মাসের পর মাস চুল পড়ে যাওয়া সমস্যা থাকে। আবার অনেকে মাথায় দেখা যায় যে চুল পড়তে পড়তে পুরো মাথায় টাক হয়ে গেছে। এই নিয়ে অনেকেই দুশ্চিন্তায় থাকেন। আবার অনেকেরই দুশ্চিন্তা হয় মাথায় নতুন চুল গজাতে কি ব্যবহার করবো। আজকে আপনাদের মাথায় নতুন চুল গজাতে কি ব্যবহার করবেন এই সমস্যার সমাধান দেওয়ার চেস্টা করেছি।

আরো পড়ুন: ম্যাজিক কনডম ব্যবহারে সুবিধা ও অসুবিধা কি

আপনার মাথায় নতুন চুল গজানোর জন্য আপনাকে প্রতিদিন খাদ্যভ্যাস পরিবর্তন করতে হবে যেমন-

  • দুধ
  • ডিম
  • মাছ
  • মাংস
  • কলিজা সহ আরো
  • প্রোটিন জাতীয় খাবার

এছাড়াও অলিভওয়েল, এলোভেরা ও মধু মিশিয়ে মাথায় ব্যবহার করতে পারেন। এসব উপাদান নতুন চুল গজাতে সাহায্য করে।

মেয়েদের নতুন চুল গজানোর উপায়

মেয়েদের মাথার চুল যেহেতু লম্বা সেক্ষেত্রে তাদের চুল পড়ে গেলে খুবই খারাপ দেখা যায়। মেয়েদের সৌন্দর্যের অর্ধেক লুকিয়ে থাকে তার মাথার চুলে। আর সেই চুল যদি পড়ে যায় তাহলে সৌন্দর্য থাকে না।

বিশেষ করে মেয়েদের মাথায় নতুন চুল গজানোর জন্য একমাত্র উপায় হচ্ছে নিয়মিত চুলের যত্ন নেওয়া। চুলের যত্ন না নিলে দ্রুত পড়ে যাওয়ার সম্ভবনা বেশি থাকে। তাই প্রতিদিন চুলে ভালোমানের শ্যাম্পু ব্যবহার করে পরিষ্কার করতে হবে। পাশাপাশি আমিষ, প্রোটিন, ভিটামিন ও খনিজ জাতীয় খাবার খেতে হবে।

আরো পড়ুন: শরীরের ভেতর কনডম আটকে গেলে কী করবেন?

ক্যাস্টর অয়েল এর উপকারিতা

আপনার টাক মাথায় চুল গজানোর জন্য ক্যাস্টর ওয়েল ব্যবহার করতে পারেন। ক্যাস্টর ওয়েল লাগানোর পর ৪ থেকে ৫ ঘন্টা পর গোসল করতে হবে। ক্যাস্টর ওয়েল অন্যতম সেরা তেল যা চুল গজাতে সাহায্য করে।

কোন ভিটামিন চুল গজাতে সাহায্য করে

অনেকে প্রশ্ন করেন চুল গজানোর জন্য কোন ভিটামিন। আপনারা ভিটামিন সি নিয়মিত খান তাহলে নতুন চুল গজাতে সাহায্য করবেন। তাছাড়া ভিটামিন সি শরীরে আয়রন শোষণে ভুমিকা রাখে। আর আয়রণ সহ অন্যান্য উপাদানগুলো চুল মজবুত করার পাশাপাশি চুল লম্বা করতে সাহায্য করে।

আরো পড়ুন: মাথা ব্যথার দোয়া,মাথা ব্যথা দূর করার দোয়া

নারকেল দুধ এবং তেল
আমাদের চুল ও মাথার স্ক্যাল্প ভালো রাখতে এবং চুল পড়া বন্ধ করতে সবচেয়ে বেশি কাজ করে নারকেলের দুধ। নিয়মিত নারকেলের দুধ ব্যবহারে চুল পড়া থেকে মুক্তি পাওয়া যায়। নারকেল কুরিয়ে নিয়ে সামান্য ‍পানি দিয়ে ব্লেন্ড করে ছেকে দুধ বের করে নিতে হবে।  

২০ মিলি নারকেল তেল, ১০ মিলি আমলকি তেল এবং দুই টেবিল চামচ লেবুর রস মিলিয়ে নিন। এবার কিছুক্ষণের জন্য রেখে নিন। এই তেল সপ্তাহে দুই দিন ভালো ভাবে মেখে ১ঘণ্টা রেখে শ্যাম্পু করুন।   এতে যেমন চুল পড়া কমে যাবে তেমনি খুশকির যন্ত্রণা থেকেও রেহাই দেবে।

আমলা তেল, নারকেল তেল, বাদাম তেল বা এমনকি জলপাই তেল দশ মিনিটের মাসাজ আপনার চুল  মজবুত করবে।
আর তেল মাসাজের ফলে আমরা মাথা ব্যথা ও মানসিক চাপ থেকেও পরিত্রাণ পেতে পারি।

আরো পড়ুন: মেয়েদের যৌন চাহিদা বাড়ানোর ওষুধ

মেথি ও তেল
মেথি কয়েক মিনিট ভেজে গুঁড়ো করে নারকেল তেলের মধ্যে দিন। সপ্তাহে তিন থেকে চারদিন এই তেল মাথায় নিয়মিত দিয়ে ভালো করে মাসাজ করুন। আপনার চুল পড়া প্রতিরোধ করতে সাহায্য করবে এই তেল।  

মেহেদি
চুল পড়া বন্ধে, রং করা, চুলের স্বাস্থ্য রক্ষায় এবং চুলের উজ্জ্বলতা বাড়াতে বহু আগে থেকেই আমরা মেদেহি ব্যবহার করে আসছি।  

সরিষা তেলে মেহেদির পাতা মিলিয়ে বেল্ড করে নিন। এই তেল সপ্তাহে দুইবার ব্যবহারে কাঙ্ক্ষিত ফল পাবেন।

মধু ও অলিভ ওয়েল
সমপরিমাণ মধু এবং অলিভ ওয়েল নিয়ে খুব ভাল করে মিশিয়ে নিন। এই মিশ্রণ সপ্তাহে দুইবার পুরো মাথায় মেখে ১৫ মিনিট রেখে শ্যাম্পু দিয়ে ধুয়ে নিন। ৩ থেকে ৪ মাস এটা ব্যবহার করুন।

আরো পড়ুন: ধাতু দূর্বলতার সমস্যা ও সমাধান

পেঁয়াজ
পেঁয়াজ মাঝ থেকে কেটে প্রতিদিন সকাল ও সন্ধ্যায় মাথার যে ‍অংশে চুল নেই সেখানে ঘষে ঘষে রসটুকু লাগিয়ে নিন। তারপর মধু মাখুন।

আমলকি
শুকনো আমলকি টুকরো করে কেটে নারকেল তেলে দিয়ে জ্বালিয়ে ঠাণ্ডা হলে একটি বোতলে রেখে দিন। এই তেল নিয়মিত ব্যবহারে চুল পড়া যেমন কমবে, তেমনি চুলের বৃদ্ধিও দ্রুত হবে।

আরো পড়ুন: সকাল বেলার প্রসাবের সাথে বীর্য যাচ্ছে

পেয়ারার পাতা
পানির মধ্যে কয়েকটি পেয়ারা পাতার দিয়ে জ্বালিয়ে পানি গাঢ় রং করে নিন।   সপ্তাহে দুই থেকে তিনবার এই পানি দিয়ে আপনার মাথা মাসাজ করুন।

ডিম
ডিম এবং অলিভ ওয়েল মিশিয়ে মাথায় লাগালে আপনার মাথার চুল বৃদ্ধি পাবে, আর নতুন চুলও গজাবে। সপ্তাহে অন্তত একবার মাথায় ডিম দিন।

আপনার জন্য স্বাস্থ্য বিষয়ক আরো কিছু পোস্ট

স্বাস্থ্য উদ্ভিদ ও প্রাণী ঔষধি গুন গোপন সমস্যা রূপচর্চা রোগ প্রতিরোধ

টেকো মাথায়ও গজাবে চুল, টাক মাথায় চুল গজানোর উপায়,টেকো মাথায় গজাবে চুল,

টেকো মাথায়ও চুল গজাবে,টেকো মাথায়ও গজাবে চুল,টেকো মাথায় নতুন চুল,টেকো মাথায় চুল গজাতে যা করবেন,

নতুন চুল গজানোর উপায়,চুল পড়া বন্ধ ও নতুন চুল গজানোর উপায়,টেকো মাথায় চুল,চুল গজানো,চুল ঘন করার উপায়,

মাথা চুল গজায়,টাক মাথায় চুল গজাবে,চুল পড়া,টাকে মাথায় চুল,চুল পড়া বন্ধ করার উপায়,মাথায় চুল গজাতে কি করবো

মাথায় চুল গজাতে যা করবেন,টাকে খাওয়া মাথায় চুল গজানোর উপায়,টাক মাথায় চুল গজানোর ১০০% নিশ্চয়তা

টাক মাথায় কি নতুন করে চুল গজানো সম্ভব?, কী করলে চুল পড়ে যাওয়া জায়গায় আবার চুল গজাবে?,

Post a Comment

Previous Post Next Post

POST ADS1

POST ADS 2