দাঁতে ব্যাথা,দাঁতে ব্যথা কমানোর উপায়,দাঁতের ব্যথা দূর করার সহজ উপায়,দাঁতে ব্যথা ৫ সেকেন্ডে দূর করার উপায়,দাঁতের ব্যথা কমানোর উপায়,দাঁতে ব্যথা


 বিষয়: দাঁতে ব্যথা হলে করনীয়,দাঁতে ব্যথা হলে,দাঁতে ব্যথা হলে করণীয়,দাঁতের ব্যথা দূর করার উপায়,দাঁতের ব্যথা,দাঁতে ব্যথা দূর করার উপায়,দাঁতে ব্যাথা,দাঁতে ব্যথা কমানোর উপায়,দাঁতের ব্যথা দূর করার সহজ উপায়,দাঁতে ব্যথা ৫ সেকেন্ডে দূর করার উপায়,দাঁতের ব্যথা কমানোর উপায়,দাঁতে ব্যথা

দাঁত ব্যথা হলে করণীয়: দাঁতের ব্যথার সঙ্গে প্রায় অনেকেই পরিচিত। এ সমস্যায় অনেকেই ভোগে থাকেন। দাঁতের বিভিন্ন সমস্যার কারণে দাঁতে ব্যথা হতে পারে। প্রথম অবস্থায় হালকা ব্যথা শুরু হলেও পরবর্তীতে তীব্র ব্যথার কারণে দাঁতসহ চোয়ালের আশেপাশের অংশ জুড়ে প্রচণ্ড ব্যথা হয়ে থাকে। যা সহ্য করা খুবই কঠিন।

দাঁতের মাড়ির ব্যথা কমানোর উপায়

দাঁতের নানা সমস্যার কারণে ব্যথা হয়ে থাকে। তাঁর মধ্যে সাধারণ কয়েকটি কারণ হচ্ছে ক্যাভিটি, ইনফেকশন, দাঁতের গোড়া বেড়িয়ে পড়া, ভাঙ্গা কিংবা চিড়যুক্ত দাঁত, মাড়ির সমস্যা কিংবা চোয়ালের জয়েন্ট ডিসঅর্ডার। দাঁতে ব্যথা হলে দেরি না করে একজন ডেনটিস্টের কাছে পরামর্শ নিন। তবে চিকিৎসকের কাছে যাওয়ার পূর্বে দাঁতের ব্যথাকে কিছুটা কমাতে ঘরোয়া পদ্ধতি ব্যবহার করে দেখতে পারেন। 

দাঁত ব্যথা দূর করার ঘরোয়া উপায়

হঠাৎ যখন দাঁতে ব্যথা শুরু হয়, অস্তির হয়ে তখন আমরা ওষুধ খোঁজতে থাকি। তবে ঘরোয়া কিছু উপায় রয়েছে যেগুলো অবলম্বন করলে কয়েক মিনিটের মধ্যেই দাঁত ব্যথার যন্ত্রণা থেকে মুক্তি পাওয়া যাবে। তবে  ঘরোয়া পদ্ধতি অবলম্বন করার পরও যদি দাঁতের ব্যথা না কমে, তাহলে অবশ্যই একজন ভালো ডেনটিস্টের কাছে যান। তবে ঘরোয়া পদ্ধতি অবলম্বন করার সময় খেয়াল রাখবেন যেন এমন কোনোকিছু না করা হয় যা আপনার সমস্যাকে আরো বাড়িয়ে তুলবে।

১. লবঙ্গ

লবঙ্গের মধ্যে দারুণ কিছু ব্যথা নিবারণকারী উপাদান রয়েছে। তাই দাঁতের ব্যাথা নিবারণের জন্য লবঙ্গ ব্যবহার করা হয়। দুইটি লবঙ্গ পিষে তা কয়েক ফোঁটা অলিভ অয়েলের সঙ্গে মিশিয়ে ব্যথার স্থানে লাগান। অথবা দুটি লবঙ্গ চিবিয়ে ব্যথার স্থানে জিভ দিয়ে চেপে ধরে রাখুন। এতে করে ব্যথা থেকে উপশম পাবেন। কারণ লবঙ্গ ইনফেকশনের বিরুদ্ধে কাজ করে এবং দাঁতের ব্যথা কমাতে সাহায্য করে।

২. রসুন

যে কোনও ব্যথা কমানোর ক্ষেত্রে কাঁচা রসুন খুবই কারযকরী। এটি দাঁতের ব্যথা কমাতে খুবই উপকারী।কয়েকটি রসুনের কোয়া সামান্য ছেঁচে এতে কিছুটা লবণ মিশিয়ে ব্যথার স্থানে লাগিয়ে রাখুন। আর যদি বেশি যন্ত্রণা হয় তবে এক কোয়া রসুন চিবিয়ে খান। এতে খুব দ্রুত উপকার পাবেন।রসুনে বিদ্যমান অ্যান্টিবায়োটিক যা দাঁতের ব্যথা কমাতে খুবই গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে।

৩. লবণ ও গোলমরিচ

সমপরিমাণ গোলমরিচের গুঁড়া আর লবণ নিয়ে এতে পানি মিশিয়ে একটি পেস্ট তৈরি করুন। এই পেস্টটি ব্যথার স্থানে কয়েক মিনিটের জন্য লাগিয়ে রাখুন।এতে দ্রুত ফলাফল পাবেন। ব্যথা কমে গেলেও এভাবে কিছুদিন নিয়মিত ব্যবহার করতে পারেন। এই মিশ্রণটি সেনসিটিভ দাঁতের জন্য খুবই উপকারি। লবণ ও গোলমরিচ এ দুটির মধ্যেই রয়েছে ব্যাকটেরিয়ারোধী, প্রদাহরোধী ও অ্যানালজেসিক উপাদান।


More Article:-


৪. কাঁচা পেঁয়াজ

পেঁয়াজে অ্যান্টিসেপটিক,অ্যান্টিমাইক্রোবায়াল উপাদান বিদ্যমান যা যে কোনও ক্ষত, ব্যথা সারাতে সাহায্য করে। দাঁতে ব্যথা হলে এক টুকরো কাঁচা পেঁয়াজ চিবিয়ে খেয়ে নিন কিংবা পেঁয়াজের টুকরা নিয়ে আক্রান্ত স্থানে লাগিয়ে রাখুন। এতে অনেক আরাম পাবেন।

৫. হিং

এক চিমটে হিং বা আধ চা চামচ হিং গুঁড়ো এবং দুই টেবিল চামচ লেবুর রস একসঙ্গে মিশিয়ে দাঁতে লাগান। এভাবে কয়েক মিনিট রাখলে খুব দ্রুত ব্যথা কমে যাবে।

৬. লবন পানি

দাঁত, মাড়ি, গলার ব্যথা কমাতে লবন পানি খুবই কার্যকরী। লবণ মুখের ইনফেকশন দূর করতেও কাজে লাগে। এক গ্লাস কুসুম গরম পানিতে এক চা চামচ লবণ মিশিয়ে কুলকুচি করুন। এতে অনেকটা আরাম পাবেন আর ফোলা ভাব ও প্রদাহ কমে আসবে। এছাড়াও এটি ব্যাকটেরিয়ার সঙ্গে লড়াই করে ব্যথা কমাতে সাহায্য করবে। দিনে ৩-৪ বার এইভাবে কুলকুচি করতে পারেন।  

৭. পেয়ারা পাতা

দাঁতের ব্যথা কমানোর অন্যতম হাতিয়ার হলো পেয়ারা পাতা। পেয়ারাপাতায় রয়েছে অ্যান্টিইনফ্লেমেটরি। যা দ্রুত ব্যথা দূর করতে খুবই কার্যকরী। একটা বা দুটো পেয়ারা পাতা চিবিয়ে খেয়ে নিন, কেননা এর রস দাঁতের ব্যথার জন্য খুবই উপকারি। অথবা একটি বা দুটি পেয়ারা পাতা চিবিয়ে দাঁতের ব্যথার স্থানে চেপে ধরে রাখুন। এতে অনেক আরাম পাবেন। এছাড়াও ৪/৫ টি পেয়ারা পাতা পানিতে দিয়ে ফুটিয়ে নিন। অতঃপর সেই পানি ঠাণ্ডা করে এতে অল্প লবণ মিশিয়ে মাউথ ওয়াশ হিসেবে ব্যবহার করতে পারেন। 

৮. ভ্যানিলা এক্সট্রাক্ট

একটা তুলোয় কয়েক ফোঁটা ভ্যানিলা এক্সট্রাক্ট নিয়ে দাঁতে চেপে ধরে রাখুন। ব্যথা কমা না পর্যন্ত কয়েক বার এটা করতে থাকুন। এতে অনেক আরাম পাবেন।

৯. দূর্বার রস

দাঁতে ব্যথা কমাতে দূর্বা ঘাস  খুবই উপকারী। এটি দাঁতের ব্যথা কমানোর পাশাপাশি দাঁতের স্বাস্থ্য ভাল রাখতেও সহায়তা করে। তাই দাঁতের স্বাস্থ্য ভাল রাখতে নিয়মিত দূর্বার রস খান।

১০. আইস কিউব

বরফের টুকরা দাঁতের ব্যথা কমাতে বেশ কার্যকরি। হাতের কাছে কোনো কিছু না পাওয়া গেলেও যদি শুধু বরফ পাওয়া যায়, তাতেও কাজ হবে। ব্যথাযুক্ত দাঁতে বরফ কুচি কাপড়ে পেঁচিয়ে ব্যথায় কয়েক মিনিট ধরে রাখুন, এতে ব্যথা কমতে থাকবে। তবে অনেক ক্ষেত্রে ব্যথা দাঁতের ব্যথা তীব্র হয়ে যায়, তাই এটি বুঝে ব্যবহার করুন।

১১. সরিষার তেল

দাঁতের যন্ত্রণা থেকে মুক্তি পেতে আধ চামচ সরিষার তেল, এক চামচ হলুদ ও আধ চামচ লবণ মিশিয়ে দাঁতে ঘষুন। এতে অনেক আরাম পাবেন এবং দাঁতের সকল সমস্যা দূর হয়ে যাবে।

১২. আলু

দাঁতের ব্যথা কমাতে আলু খুবই কার্যকরী। আলুকে টুকরো করে কেটে নিন। এবং সেই ছোট্টটুকরো দাঁতের ব্যথার জায়গায় ধরে রাখুন। দেখবেন দ্রুত ব্যথা কমে যাবে। এবং অনেক আরাম পাবেন।

১৩. হাইড্রোজেন পারক্সাইড

হাইড্রোজেন পারক্সাইড পানির সঙ্গে মিশিয়ে সাথে ধুয়ে ফেললে ব্যথা এবং প্রদাহ থেকে মুক্তি পাবেন। এটি ব্যাকটেরিয়াকে ধ্বংস করে, দাঁতের ক্ষয় হ্রাস করে এবং মাড়ির রক্তপাত নিরাময় করে।

হাইড্রোজেন পারক্সাইড পাতলা করুন। পানির সঙ্গে ৩ শতাংশ হাইড্রোজেন পারক্সাইড মেশান এবং এটি মাউথওয়াশ হিসাবে ব্যবহার করুন। লক্ষ্য রাখবেন, যেন এটি কোনোভাবেই গিলে না ফেলেন।

১৪. পিপারমিন্ট টি ব্যাগ

তুলসি পাতা সংবেদনশীল মাড়ির ব্যথা কমাতে খুবই কার্যকর। একটি ব্যবহৃত পিপারমিন্ট টি ব্যাগ নিন এবং এটি ঠান্ডা হতে দিন। এই টি ব্যাগটি আক্রান্ত স্থানে লাগিয়ে রাখুন। আপনি চাইলে টি ব্যাগটি কিছুটা গরম থাকা অবস্থায়ও ব্যবহার করতে পারেন। অথবা টি ব্যাগটি ফ্রিজে রেখে বরফ ঠান্ডা করেও নিতে পারেন।

দাঁত ব্যথার দোয়া

বিভিন্ন কারণেই আমাদের শরীরে ব্যথা হয়ে থাকে। এ সব ব্যথার মধ্যে দাঁতের ব্যথা খুবই মারাত্মক। দাঁতের ব্যথা মানুষের মস্তিষ্কে আঘাত করে। আর এই ব্যথা সহ্য করা খুবই কঠিন। তবে কুরআনুল কারীমে একটি আয়াত রয়েছে যা পাঠ এর মাধ্যমে আপনি সহজেই দাঁতের ব্যথা থেকে মুক্তি পেতে পারেন।  আয়াতটি হলো-

উচ্চারণ : কুল হুয়াল্লাজি আংশাআকুম ওয়া ঝাআলালাকুমুস সাম্আ ওয়াল আব্ছারা ওয়াল আফয়িদাতা ক্বালিলাম্মা তাশকুরুন।’(সূরা মুলক : আয়াত ২৩)

অর্থ: বলুন, তিনিই তোমাদেরকে সৃষ্টি করেছেন এবং দিয়েছেন কর্ণ, চক্ষু ও অন্তর। তোমরা অল্পই কৃতজ্ঞতা প্রকাশ কর।

যারা প্রত্যেক নামাজের সময় নিয়মিত মেসওয়াক করে, তারা দাঁতের সকল প্রকার রোগ-ব্যাধি থেকে মুক্ত থাকে। মহান রাব্বুল আলামিন আল্লাহ তায়ালা মুসলিম উম্মাহকে এ আয়াতের আমল করার মাধ্যমে দাঁতের ব্যথা থেকে মুক্ত থাকার তাওফিক দান করুন। আল্লাহুম্মা আমিন।

দাঁত ব্যথার ট্যাবলেট এর নাম

দাঁতের ব্যাথা হলে সবাই ঔষধ খুঁজে। হঠাৎ করে দাঁতের ব্যাথা বেড়ে গেলে সবাই ব্যাথার ট্যাবলেট খেতে চায়। তাই ব্যথানাশক ঔষধ খাওয়ার আগে একজন ডেনটিস্টের সাথে যোগাযোগ করতে হবে। ডাক্তার নির্দেশ অনুযায়ী ওষুধ সেবন করতে হবে। 

ঔষধের নাম →কোম্পানি →প্রতি পিসের দাম

Tory(120mg)→Etoricoxib→14.10 Taka

Algirex(120mg) →Etoricoxib→14.25Taka

Aroxia(120mg)→Etoricoxib→10.00Taka

Cox-E(120mg) →Etoricoxib→14.00Taka

Ecox(120mg) →Etoricoxib→14.00Taka

Etox(60mg) →Etoricoxib→8.02Taka

Etorix(120mg) →Etoricoxib→14.00Taka

Torimon(90mg) →Etoricoxib→12.04Taka

উক্ত ট্যাবলেট গুলো দাঁত ব্যথার সময় খেতে পারেন। তবে ডাক্তারের পরামর্শ ছাড়া একদমই গ্রহণ করবেন না। যে সব রোগীদের এই ওষুধের প্রতি সংবেদনশীলতা থাকে, তারা এটি ব্যবহার করতে পারবে না।

বিঃদ্রঃ ডাক্তারের পরামর্শ ছাড়া কোনো ব্যথানাশক ওষুধ সেবন করা উচিৎ নয়। দীর্ঘদিন ধরে ব্যথানাশক ওষুধ সেবন করলে নানা ধরনের শারীরিক সমস্যা দেখা দিতে পারে। তাই ডাক্তারের পরামর্শ অনুযায়ী ওষুধ সেবন করুন।

শেষকথাঃ 

দাঁতের ব্যথা খুব জটিল একটি সমস্যা। এই সমস্যায় অধিকাংশ মানুষ ভোগছেন।  দাঁত ব্যথা কমানোর ঘরোয়া কিছু উপায় রয়েছে, যেগুলো অনুসরণ করলে দাঁত  ব্যথা থেকে মুক্তি পাওয়া যাবে। উপরে এই ঘরোয়া উপায় গুলো বর্ণনা করা হয়েছে। দাঁত ব্যথা যদি তীব্র হয়ে যায় তবে দেরি না করে, দ্রুত চিকিৎসকের কাছে যান।

প্রশ্ন ও মতামত জানাতে পারেন আমাদের কে ইমেল : info@banglanewsexpress.com

আমরা আছি নিচের সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম গুলোতে ও

Post a Comment

Previous Post Next Post

POST ADS1

POST ADS 2