#Post ADS3

advertisement

গরমে আরামের পোশাক...


 গরমে আরামের পোশাক...

 

দাবদাহের তীব্রতা দিন দিন যার মাত্রা বেড়েই চলেছে। গরম ও অসহনীয় জ্যামে অতিষ্ঠ না হতে প্রাধান্য দিতে পারেন পোশাক নির্বাচনে। গরমে কিছুটা স্বস্তি পেতে পরতে পারেন হালকা ধরনের সুতি কাপড়, যা ঘাম শুষে নেয়, আরামদায়কও। উষ্ণতা ও আর্দ্রতার ধাক্কা সামলাতে এই কাপড়ের তুলনা নেই। অনেকেই জানেন না- পোশাকের রঙের ওপরও গরম লাগার মাত্রা নির্ভর করে।


গরমে ঠিক কী ধরনের পোশাক পরলে আরাম লাগবে এটা নিয়ে অনেকেই চিন্তায় থাকেন। তাদের জন্য উত্তরটা হলো- গরমে পোশাক হতে হবে আরামদায়ক। সহজে ঘাম শুষে নেয়, বাতাস চলাচলে সক্ষম, ওজনে হালকা এবং তাপ থেকে সুরক্ষা দেয়- এমন তন্তুর পোশাক নির্বাচন করা প্রয়োজন। 


এই প্রসঙ্গে বাংলাদেশ গার্হস্থ্য অর্থনীতি কলেজের ‘বস্ত্র পরিচ্ছদ ও বয়নশিল্প বিভাগ’-এর সহকারী অধ্যাপক শাহমিনা রহমান বলেন, ‘এই সময়ে সুতি, লিনেন, সিল্ক, পাতলা খাদি ইত্যাদির পোশাক বেশ আরামদায়ক। তাছাড়া এসব তন্তুর যত্ন নেওয়াও বেশ সহজ।’ গরমের মৌসুমে হালকা রঙের পোশাক সেরা। গাঢ় ও কালো রংয়ের কাপড় তাপ শোষণ করে। তাই গরম বেশি লাগে। অন্যদিকে হালকা রঙের তাপ শোষণ ক্ষমতা কম ও চোখে দেখতেও প্রশান্ত লাগে।


অফিস অথবা বিশেষ দিনগুলোতে নারীরা শাড়ি পরে থাকেন। সে ক্ষেত্রে গরমে স্বস্তি পেতে হালকা রঙের শাড়ি যেমন সুতির ব্লক, টাঙ্গাইলের শাড়ি, অ্যাপ্লিকের শাড়ি, ছাপা শাড়ি, ব্লক-বাটিকের সুতি ট্রেন্ডি শাড়ি, অথবা পাতলা সাটিন বা জর্জেটের শাড়িও পরতে পারেন। ছোট-বড়, নারী-পুরুষ সবার জন্য গরমে আরামদায়ক ভূষণ টি-শার্ট। তবে হালকা রং দেখে গরমে টি-শার্ট পরতে হবে।

কেমন পোশাক পরবেন?


►  গরমে যে কোনো হালকা রঙের সুতি কাপড় নির্বাচন করা উচিত পোশাক তৈরির জন্য। কারণ সুতি খুব হালকা হয় আর সুতার তৈরি বলে সুতি কাপড়ের মধ্য দিয়ে সহজেই বাতাস চলাচল করতে পারে। তাই সুতি কাপড় শরীর ভিতর থেকে ঠান্ডা রাখে।


►  সুতির মতোই আরামদায়ক খাদি। এটি সহজেই হ্যান্ডেল করা যায়। খাদি খুব ভালোভাবে বাতাস সরবরাহ করে শরীরে। খাদি খুব সহজে ঘামও শুষে নেয়। ফলে শরীরে ঘাম বসে না। আর খাদিকে এখন ফ্যাশন বলাই যায়। তাই গরমে বেছে নিতে পারেন খাদির পোশাক।


►  এটি হালকা ফেব্রিকের বলে এ পোশাক পরিধানে অনেকটা বেবি সফট ফিলিং আসে। লন ক্লথ লিনেন আর কটনের মিশ্রণে তৈরি। তাই এটা হালকা ও নরম। টেক্সচার হালকা সে জন্য গরম কম লাগে।


►  এই ফেব্রিক শরীর ঠান্ডা রাখে। এ কাপড়টি ভিতর থেকেই খুব ঠান্ডা। আর এর ওজন বেশ হালকা। গরমের জন্য বেশ আরামের।


►  গরমের পার্টি থাকলে ফ্রিস্কোর তৈরি পোশাক পরলে দারুণ লাগবে। এতে আরামও পাবেন, সঙ্গে একটা ট্রেন্ডি লুকও আসবে। এটি হালকা এবং বাতাস চলাচলের যথেষ্ট সুযোগ তৈরি করে দেয়।


পোশাকের রং


সাদা পোশাক বেশ উপকারী গরমে। শরীর ঠান্ডা রাখে। এ ছাড়া হালকা রঙের সবুজ, বেগুনি, আকাশি, নীল হলুদের নানান শেড খুবই ভালো গরমে পরার জন্য। এভাবে পোশাক নির্বাচন করলে গরমে খুব একটা সমস্যা হবে না। আরামও লাগবে, সঙ্গে ফ্যাশনও হবে।


Post a Comment

0 Comments

advertisement

advertisement