#Post ADS3

advertisement

সবজি হিসেবে অনন্য টমেটো, টমেটোর গুনাগুন, স্বাস্থ্য গুনে ভরা টমেটো।


সবজি হিসেবে অনন্য টমেটো, টমেটোর গুনাগুন, স্বাস্থ্য গুনে ভরা টমেটো।


বাংলাদেশের জন্য একটি সহজলভ্য এবং মজাদার সবজি টমেটো । দাম কম বা বেশি হলেও প্রায় সারা বছর এখানে টমেটো পাওয়া যায়। অনেক গুণ সমৃদ্ধ টমেটো কাঁচা ও রান্না করে খাওয়া যায়। তবে কাঁচা টমেটো থেকে বেশি উপকারিতা পাওয়া যায়। টমেটোর স্বাস্থ্য উপকারিতা ও গুণাগুণ সম্পর্কে হয়তো আমরা অনেকেই জানি না ।


টমেটো দেখতে যেমন সুন্দর তেমনি অনেক ফলের চেয়ে এটি বেশি উপকারী । আপেল, কমলার মতো দামি দামি ফলের চেয়ে এর দাম অনেক কম অথচ পুষ্টিগুণ অন্যান্য ফলের চেয়ে তিনগুণ বেশি। টমেটোতে রয়েছে লাইকোপেন, ফলিক এসিড, ভিটামিন এ, ভিটামিন কে ও সামান্য পরিমাণ ক্রোমিয়াম ইত্যাদি ।  


টমেটোর প্রধান গুণ হলো, এটি হার্ট ভালো রাখে । আবার, টমেটোতে রয়েছে পর্যাপ্ত ভিটামিন-এ ও ভিটামিন সি এবং পর্যাপ্ত অ্যান্টি-অক্সিডেন্ট । এসব ভিটামিন, বিটা ক্যারোটিন ও অ্যান্টি-অক্সিডেন্ট রক্তে জমা হওয়া সব টক্সিনকে শরীর থেকে বেরিয়ে যেতে সহায়তা করে। অন্যদিকে, নিয়মিত যারা টমেটোর সালাদ খায় , তাদের কিডনিতে পাথর হওয়ার সম্ভাবনা অনেকাংশে হ্রাস পায় ।


পটাশিয়াম  ভিটামিন-বি  থাকায় টমেটো কোলেস্টেরল ও অতিরিক্ত রক্তচাপ কমায়। ব্লেন্ডার করে টমেটোর জুস খেলে হার্ট অ্যাটাক ও অন্যান্য হৃদরোগের ঝুঁকি কমে যায় অনেকাংশে ।


বিজ্ঞানী ও পুষ্টিবিদদের মতে,  টমেটোতে থাকা উচ্চমানের লাইকোপিন প্রস্টেট, কোলন ও পাকস্থলির ক্যানসারের সেল তৈরি হতে দেয় না। লাইকোপিন হচ্ছে এক প্রকার প্রাকৃতিক অ্যান্টি-অক্সিডেন্ট যা ক্যান্সারের সেল তৈরিতে বাধা দেয়। ফলত, টমেটো ক্যান্সারের অন্যতম প্রতিরোধক হিসেবে কাজ করে।


হয়ত আমরা অনেকেই জানিনা যে , ত্বকের  ক্লিনজার হিসেবেও টমেটো  ভালো কাজ করে, কেননা এর লাইকোপিন উপাদানটি পরিষ্কার করতে পারে ত্বক ।  টমেটো থেঁতো করে ক্লিনজার হিসেবে ব্যবহারের প্রচলন অনেক দিনের। এটা থেঁতো করে মুখে লাগিয়ে ১০ মিনিট ম্যাসাজ করে ধুয়ে ফেললে রোদে পোড়া ভাব, বলিরেখা ও চোখের নিচে কালো দাগ দূর হয়ে যায় ।


আবার ,প্রচুর ক্যালসিয়াম ও ভিটামিন কে থাকায় মজবুত হাড় গঠনে টমেটো ব্যাপক ভূমিকা রাখে , কেননা, ক্যালসিয়াম ও ভিটামিন দুটি উপাদানই শক্ত হাড় গঠন ও টিস্যুর পুনর্গঠনে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখে। সুতরাং কাঁচা হোক বা পাকা ,টমেটো খেতে পারেন নিশ্চিন্তে । 

Post a Comment

0 Comments

advertisement

advertisement