#Post ADS3

advertisement

বেকিং সোডার ব্যবহার এবং বেকিং সোডার গুনাগুন- বেকিং সোডার ১০টি উপকারিতা জেনে নিন, স্বাস্থ্য সুরক্ষায় বেকিং সোডার ব্যবহার,


 বেকিং সোডার ব্যবহার এবং বেকিং সোডার গুনাগুন- বেকিং সোডার ১০টি উপকারিতা জেনে নিন,  স্বাস্থ্য সুরক্ষায় বেকিং সোডার ব্যবহার,

অনেকের বাড়িতে বিভিন্ন কাজে বা খাবারে বেকিং সোডার প্রচুর ব্যবহার করা হয়। খাদ্যদ্রব্য বা বিভিন্ন পানীয়ের সাথে খাবার সোডা ব্যবহার না করলেই নয়। কিন্তু জানেন কি এটি বিভিন্ন অসুখ বিসুখ নিরাময়ে কার্যকরী ভূমিকা পালন করে।


তবে ওষুধ হিসেবে ব্যবহার করা ছাড়াও অন্যান্য গুরুত্বপূর্ণ কাজেও ব্যবহার করা হয়। আসলে পানিতে মিশিয়ে খেলে গ্যাসের সমস্যা দূর হয়। পেটের সমস্যা দূর করতে এবং দাঁত পরিষ্কার করতে বেকিং সোডা পাউডার খুবই উপকারী খাবার হিসেবে কাজ করে।



বেকিং সোডার ব্যবহার

বেকিং সোডার অ্যান্টিসেপটিক বৈশিষ্ট্য রয়েছে যা শরীরের ব্যাকটেরিয়া, ছত্রাক এবং অন্যান্য পরজীবী ধ্বংস করতে সাহায্য করে। চলুন নিচে জেনে নেওয়া যাক বেকিং সোডার ব্যবহার এবং বেকিং সোডার গুনাগুন কিংবা পানিতে বেকিং সোডা মিশিয়ে পান করলে কী কী উপকার পাওয়া যায়-


ঠোটের কালো ভাব কমায়


মধু এবং বেকিং সোডা মিশিয়ে প্রতিদিন তিন মিনিট করে ঠোটে লাগিয়ে রাখলে ঠোটের কালোভাব দূর হবে। তারপর পানি দিয়ে ধুয়ে ফেলুন।  বেকিং সোডা ক্যান্সার থেকে মুক্তি দিতে পারে


ত্বকের উন্নতিতে সহায়তা করে


মৃত কোষ অপসারিত করে নতুন কোষ তৈরিতে সাহায্য করে বেকিং সোডা। এর ফল স্বরূপ ত্বকের পুরানো দ্যুতি ফিরে আসে। এর জন্য কেবল প্রয়োজন পানির সঙ্গে বেকিং সোডা মিশিয়ে মুখে বৃত্তাকারের ঘষে লাগানোর। তবে এটি সপ্তাহে দুই দিনের বেশি ব্যবহার করা উচিত নয়। ত্বকের যত্নে বেকিং সোডার ব্যবহার জেনে নিন


ব্যায়াম থেকে সৃষ্ট সমস্যা দূর করে


অতিরিক্ত ব্যায়ামের ফলে শরীরে ল্যাকটিক অ্যাসিড জমতে পারে, শরীরে পেশীগত কাঠিন্নতা দেখা দিলে এই সমস্যার প্রতিষেধক হিসাবে বেকিং সোডা অত্যন্ত উপকারী। পানির সঙ্গে মিশ্রিত বেকিং সোডা এক্ষেত্রে অসাধারণ উপকার করে।


ব্রণ প্রতিরোধক


ব্রণ এবং মুখে হওয়া ফুসকুড়ি কমাতে অসাধারণ উপকার করে বেকিং সোডা। শুধু খেলেই হবে? মাখতেও তো হবে বেকিং সোডা!


মুত্রাশয়ের অসুখ


 মুত্রাশয়ের অসুখ সারাতে পানি দিয়ে বেকিং সোডা পানের বিকল্প আর কিছু নেই। এছাড়া বেকিং সোডা পানি আপনার শরীরে উপকারি ব্যাকটেরিয়া বৃদ্ধিতে সাহায্য করে।


গেঁটেবাত


ইউরিক অ্যাসিডের পরিমাণ মূত্র এবং টিস্যুতে অতিরিক্ত পরিমাণে বেড়ে গেলে সারা শরীরে মারাত্মক যন্ত্রণা হয়। যার ফলস্বরূপ গেঁটে বাত দেখা যায়। এটি ঠিক করতে বেকিং সোডা অসম্ভব উপকার করে।পানির সাথে নির্দিষ্ট পরিমাণে বেকিং সোডা মিশিয়ে নিয়মিত পান করলে বাতের অসুখ নিরাময় হয়।


দাঁত উজ্জ্বল করে


বেকিং সোডার মতো দাঁত পরিষ্কার অন্য কিছুতেই হয় না। দাঁতের ওপর থেকে দাগ ওঠানোর জন্য বেকিং সোডার ভূমিকা অসাধারণ। দাঁত ঝকঝকে সাদা করতে সোডা পাউডারের ভূমিকা অতুলনীয়। এই সোডা পানি দাঁতে ব্যবহারে দাঁত হবে ঝকঝকে সাদা।


আলসারে বেকিং সোডা


আপনি কি পেটের আলসারে ভুগছেন? তাহলে আজই এক গ্লাস পানিতে এক চামচ বেকিং সোডা মিশিয়ে পান করুন। দেখবেন ধীরে ধীরে এর সুফল পাবেন।


দেহের পিএইচের মাত্রা নিয়ন্ত্রনে


 পানির সাথে বেকিং সোডা মিশিয়ে শরবতের মত পান করলে এটি  দেহের পিএইচের মাত্রা নিয়ন্ত্রন করে। শরীরে এসিডের মাত্রা বেড়ে গেলে এটি হয়।


প্রসাবে সমস্যা


যারা প্রসাবের সমস্যায় ভুগছেন তারা এটি নিয়মিত পান করলে তারা প্রসাবের সমস্যা থেকে মুক্তি পেতে পারেন। এটি পানির সঙ্গে মিশ্রণ করে খেতে হয়ে।


প্রাকৃতিক অম্লনাশক


অ্যাসিড নিঃসরণ হলো শরীরের খুব সাধারণ একটি ঘটনা। যার ফলে অম্বলের সমস্যা প্রায়শই দেখা দিয়ে থাকে। বেকিং সোডা এর মধ্যে সোডিয়াম বাইকার্বোনেট থাকার জন্য অম্বলের সমস্যা এবং পেটের অন্যান্য সমস্যা মেটাতে সাহায্য করে।


আরামদায়ক গোসলে


এক বালতি জলে আপেল সিডার ভিনেগার এবং এক চা চামচ বেকিং সোডা মিশিয়ে গোসল করলে আপনি স্বস্তি বোধ করবেন। নতুন চুল গজাবে বেকিং সোডা-শ্যাম্পুতে!


প্রাকৃতিক অ্যালকালাইসিং


বেকিং সোডা শরীর থেকে অ্যাসিডের পরিমাণ কমাতে এবং পিএইচের ভারসাম্য বজায় রাখতে সাহায্য করে। শরীরে অ্যাসিডের পরিমাণ বেশি হলে অস্টিওপোরোসিস, আর্থ্রাইটিসের মতো সমস্যা দেখা দেয়।

Post a Comment

0 Comments

advertisement

advertisement