যেভাবে ত্বক ফর্সা করে মসুর ডাল, মসুর ডাল দিয়ে কিভাবে রূপচর্চা করা যায়?, মসুর ডাল দিয়েই সেরে ফেলুন রুপচর্চা

0

বিষয়: মসুর ডাল দিয়ে রূপচর্চা করলে ত্বক ফর্সা ও মসৃণ করুন ৭টি উপায়ে, মসুরের ডাল দিয়েই হোক ত্বক উজ্জ্বল, যেভাবে ত্বক ফর্সা করে মসুর ডাল, মসুর ডাল দিয়ে কিভাবে রূপচর্চা করা যায়?, মসুর ডাল দিয়েই সেরে ফেলুন রুপচর্চা

মসুর ডাল দিয়ে রূপচর্চা

ত্বকের যত্নে যুগ যুগ ধরে রূপচর্চার অনুষঙ্গ হিসেবে ব্যবহৃত হয়ে আসছে মসুর ডাল। মসুর ডালে উপস্থিত প্রোটিন, অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট, কার্বোহাইড্রেড, ডায়াটারি ফাইবার, ওমেগা থ্রি ফ্যাটি অ্যাসিড, ভিটামিন এ, সি,ই, কে এবং থিয়েমিন নানাভাবে শরীরের উপকারে লেগে থাকে। ত্বকে জমে থাকা ময়লা ও বলিরেখা দূর করতে মসুর ডাল দুর্দান্ত কার্যকরী। সেই সঙ্গে ত্বকের ভিতরে উপস্থিত ক্ষতিকর উপাদান বের করে দিয়ে স্কিনকে সুন্দর, ফর্সা ও মসৃণ করে তুলতেও বিশেষ ভূমিকা পালন করে থাকে। ফলে মসুর ডাল দিয়ে রূপচর্চা বেড়েছে দিন দিন। 

আজ জানবো, মসু ডাল দিয়ের রূপচর্চা করে ত্বককে মসৃণ, কোমল ও উজ্জ্বল করে তোলার ৭টি উপায়।

১. ত্বক উজ্জ্বল করতে মসুর ডাল

অল্প সময়ে ত্বককে উজ্জ্বল, ফর্সা এবং প্রাণবন্ত করে তুলতে মসুর ডালের জুড়ি নেই। ৫০ গ্রাম মসুর ডালকে সারা রাত জলে ভিজিয়ে রেখে পরদিন সকালে উঠে জলটা ছেঁকে নিয়ে ডালটা বেটে নিতে হবে। তারপর বাটা ডালের সঙ্গে ১ চামচ কাঁচা দুধ এবং পরিমাণ মতো বাদাম তেল মিশিয়ে নিতে হবে। তারপর পেস্টটি ভাল করে মুখে লাগিয়ে ১৫-২০ মিনিট অপেক্ষা করতে হবে। এরপর উষ্ণ গরম জল দিয়ে ধুয়ে ফলতে হবে মুখটা। এইভাবে প্রতিদিন ত্বকের পরিচর্যা করলে ত্বক হয়ে উঠবে উজ্জ্বল ও ফর্সা।

২. ত্বকে তৎক্ষণাৎ গ্লো আনতে

ত্বকে তৎক্ষণাৎ গ্লো আনার জন্য ১ চা চামচ মসুর ডাল পাউডারের সঙ্গে সম পরিমাণ বেসন এবং দই মেশাতে হবে। সঙ্গে অল্প করে হলুদও যোগ করতে পারেন। এবার সবকটি উপাদান ভাল করে মিশিয়ে মুখে লাগিয়ে কিছু সময় অপেক্ষা করার পর মুখ ধুয়ে নিতে হবে।

৩. মসুর ডাল দিয়ে ফেসওয়াশ

কৃত্রিম ফেসওয়াশ ‍দিয়ে মুখের বারোটা না বাজিয়ে মসুর ডালকে কাজে লাগিয়ে ত্বক পরিষ্কার করা যায়। এতে স্কিন টোনেরও উন্নতি ঘটে এবং ত্বককে রাখে উজ্জ্বল ও সতেজ। এক্ষেত্রে,  এক চামচ মসুর ডালের পাউডারের সঙ্গে ২ চামচ দুধ, অল্প পরিমাণে হলুদ এবং ৩ ড্রপ নারকেল তেল মিশিয়ে একটা পেস্ট বানিয়ে নিতে হবে। তারপর মিশ্রণটি সারা মুখে লাগিয়ে ২ মিনিট হালকা হাতে স্ক্রাব করে পানি দিয়ে ধুয়ে ফেলতে হবে। যাদের স্কিন তৈলাক্ত তারা নারকেল তেল ব্যবহার করবেন না।


More Article:-


৫. ড্রাই স্কিনের সমস্যা দূর করতে

ত্বকের শুষ্কতা নিয়ে সমস্যায় ভুগলে উপকার করবে মসুর ডাল। সেজন্য সমপরিমাণ মসুর ডাল ও গাঁদা ফুল একসঙ্গে বেটে একটি পেস্ট তৈরি করে নিতে হবে। এরপর সেটি অন্তত ১৫ মিনিট  মুখে লাগিয়ে রাখতে হবে। এরপর পরিষ্কার পানি দিয়ে মুখ ধুয়ে ফেলতে হবে। এই পেস্টটি ত্বকের শুষ্কতার পাশাপাশি ত্বককে কোমল করতে ও ব্রণ দূর করতে সাহায্য করে।

৬. ফেস হেয়ার পরিষ্কার করতে মসুর ডাল

নারীর মুখে অবাঞ্ছিত লোম থাকলে দেখতে খারাপ লাগে। অনেক নারীই এই সমস্যায় ভুগে থাকেন। মুখে অবাঞ্ছিত লোমের সমস্যা থেকে মুক্তি পেতে ব্যবহার করুন মসুর ডালের ফেসপ্যাক। সেজন্য ১ চা চামচ মসুর ডালের গুঁড়ার সঙ্গে ১ চা চামচ চালের গুঁড়া, ১ চা চামচ দুধ ও ১ চা চামচ বাদাম তেল যোগ করে সবগুলো উপাদান একসঙ্গে মিশিয়ে মিশ্রণটি মিনিট পাঁচেকের মত মুখে রেখে দিতে হবে। এরপর পানি দিয়ে ধুয়ে ফেলতে হবে।

৭. ত্বকের মৃত কোষ দূর করতে

ত্বকের উপরের অংশে জমে থাকা মৃত কোষের স্তর সরিয়ে ত্বককে প্রাণবন্ত করে তুলতে সাহায্য করে মসুর ডালের ফেসপ্যাক । পরিমাণ মতো মসুর ডালের পাউডারের সঙ্গে অল্প পরিমাণ দুধ মিশিয়ে পেস্ট তৈরি করে ব্যবহার করতে হবে। সপ্তাহে অন্তত দুইবার। এতে ত্বকের মৃত কোষ দূর হবে এবং ত্বক উজ্জ্বল হয়ে উঠবে। ত্বকের অকালে বুড়িয়ে যাওয়া রোধ করতেও সাহায্য করে মসুর ডালের ফেসপ্যাক।

মসুর ডালের উপকারিতা

মসুর ডাল দিয়ে রূপচর্চা যেমনি ত্বকের জন্য উপকারি তেমনি মসুর ডাল খাওয়া শরীরের জন্যও উপকারি। মসুর ডালে রয়েছে প্রচুর পরিমাণে খাদ্য আঁশ যা কোষ্ঠকাঠিন্য থেকে মুক্তি দেয়। মসুর ডালে আয়রন ও ফলেড একসাথে পাওয়া যায়। মসুর ডালের ফাইবারে আরও অনেক ‍উপকারিতা রয়েছে। এটি শরীরে চিনির পরিমাণ কমিয়ে ডাইবেটিস নিয়ন্ত্রণে সাহায্য করে। এছাড়া এটি উচ্চ রক্তচাপ কমাতেও সম্পূর্ণ ভূমিকা পালন করে। মসুর ডাল খেলে হার্ট অ্যাটাক ও স্ট্রোকের ঝুঁকি কমে। মসুর ডাল গর্ভবতী মায়েদের জন্য খুবই উপকারি।

প্রশ্ন ও মতামত জানাতে পারেন আমাদের কে ইমেল : info@banglanewsexpress.com

আমরা আছি নিচের সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম গুলোতে ও

 

Tags

Post a Comment

0Comments
Post a Comment (0)

ads1

ads 2

 


#buttons=(Accept !) #days=(20)

Our website uses cookies to enhance your experience. Learn More
Accept !