বাথরুমে টুথব্রাশ রাখলেই বিপদ,শৌচালয়েই দাঁত মাজার ব্রাশ রাখেন? , টুথব্রাশ বাথরুমে রাখছেন? কী হয় এর ফলে,টুথব্রাশ রাখার সঠিক উপায়



বিষয়: বাথরুমে টুথব্রাশ রাখলেই বিপদ,শৌচালয়েই দাঁত মাজার ব্রাশ রাখেন? , টুথব্রাশ বাথরুমে রাখছেন? কী হয় এর ফলে,টুথব্রাশ রাখার সঠিক উপায়,

দাঁতে হলুদ ছোপ পড়লেই আমাদের চিন্তার শেষ থাকে না। সামান্য দাঁতে ব্যথা হলেই চিকিৎসকের কাছে দৌঁড়াই আমরা। দাঁতের যত্নের বিষয়ে সচেতন হলেও, টুথব্রাশ নিয়ে কিন্তু আমরা মোটেই সচেতন নই। অথচ এই দাঁত মাজার ব্রাশ থেকেই বাড়ে সংক্রমণের ঝুঁকি।

এবার জেনে নিন, দাঁতের সংক্রমণ এড়াতে বাথরুমে টুথব্রাশ রাখার ক্ষেত্রে যেসব ভুল এড়িয়ে চলবেন-

১) বাথরুমে টুথব্রাশ রাখবেন না। যদিও বা রাখেন, তবে কমোডের আশেপাশে নয়। না হলে ব্রাশে ব্যাক্টেরিয়ার বাসা বাঁধার আশঙ্কা বাড়ে।

২) ব্রাশে ঢাকনা পরিয়ে রাখতে হবে তা না হলে ব্রাশে জীবাণুর বংশবৃদ্ধির আশঙ্কা বাড়ে। তবে এর ঢাকনা মাঝেমধ্যে পরিষ্কার করতে হবে।

৩) বাড়ির সবার ব্রাশ একসঙ্গে রাখা উচিত নয়। এই অভ্যাস কিন্তু স্বাস্থ্যকর নয়। কারণ এতে এক টুথব্রাশ থেকে অন্য ব্রাশে জীবাণু ছড়ায়।

৪) একই ব্রাশ দিনের পর দিন ব্যবহার করা ঠিক নয়। তিন মাস অন্তর ব্রাশ বদলে ফেলা উচিত। দিনের পর দিন একই ব্রাশ ব্যবহার করলে কেবল সংক্রণমের ঝুঁকি বাড়ে না, আপনার দাঁতের স্বাস্থ্যেরও ক্ষতি হয়।

৫) অনেকেই ব্রাশ করার পর ঠিকমতো ধুয়ে রাখেন না। এমনটা করবেন না। ব্রাশ পরিষ্কার রাখা ভীষণ জরুরি। সম্ভব হলে ব্রাশ করার পর গরম পানি দিয়ে ধুয়ে রাখুন। এতে জীবাণু সংক্রমণের ঝুঁকি অনেকটাই কমে যাবে।

প্রশ্ন ও মতামত জানাতে পারেন আমাদের কে ইমেল : info@healthcitylife.com

0 تعليقات

Advertisement 2

Advertisement 3

Advertisement 4