১ মাস ১৫ দিন বা ২ মাসের বাচ্চা নষ্ট করার

গোপন সমস্যা সমাধান রূপ চর্চা রোগ ব্যাধি

Health City Life এর সর্বশেষ আপডেট পেতে Google News অনুসরণ করুন

 

১ মাস ১৫ দিন বা ২ মাসের বাচ্চা নষ্ট করার

১ মাস ১৫ দিন বা ২ মাসের বাচ্চা নষ্ট করার ভালো কোনো ওষুধ 


আমার নিয়মিত মাসিক হতো ৩/৪ তারিক থেকে ৯/১০ পর্যন্ত।  আমি হাসব্যান্ড এর সাথে ১০ অক্টোবর রাতে সহবাস করি এর পর আরো কয়েক দিন সহবাস করসি (সাথে ৩নবেম্বর ও ৮ নবেম্বর ও আসে ) । 


এখন নবেম্বর মাস এর ১৬ তারিখ হয়ে গেছে আমার মাসিক হচ্ছে না।

১)গণ গণ প্রসাব ২) মাসিক বন্ধ হয়ে গেছে ৩) খেতে ভালো লাগে না ৪) দুর্বলতা অনুভব হয়।


আমার মনে হচ্ছে আমি প্রেগনেট। ………আমি কি প্রেগনেট ?  প্রেগনেসি টেস্ট করার মতো কোনো সোজুক পাচ্ছি না।  যদি আমি প্রেগনেট হাই তাহলে কোন ওষুধ খেলে  (এমন কোনো ওষুধ আসে কি যেটা খেলে ১মাস ১৫ দিন বা ২ মাস এর  বাচ্চা নষ্ট করা যাবে ) এই বাচ্চা নষ্ট করা যাবে কোনো প্রকার শারীরিক ক্ষতি ছাড়া (কম ক্ষতি হলে ও চলবে) । 


আর ওষুধটা কিভাবে ব্যবহার করতে হবে সেটা একটু দয়াকরে বুজিয়ে বলবেন। অনেক উপকার হবে…… অগ্রিম ধণ্যবাদ


ক মাস পরে গর্ভাবস্থা নষ্ট করার একমাত্র উপলভ্য পদ্ধতি হয় চিকিৎসাগত বা সার্জিকাল গর্ভপাত। শব্দ শুনেই বোঝা যায়, গর্ভধারণের অগ্রগতিতে বাধা দেওয়ার জন্য ওষুধ ব্যবহারের সাথে চিকিৎসাগত গর্ভপাত জড়িত। 

Health City Life এর সর্বশেষ আপডেট পেতে Google News অনুসরণ করুন


গর্ভাবস্থার অগ্রগতি বন্ধ করার জন্য ওষুধ ব্যবহার করা সর্বোত্তম উপায় হিসাবে বিবেচিত হয়, কারণ এটি প্রকৃতিতে আক্রমণাত্মক নয়। গর্ভাবস্থা রোধ করার সিদ্ধান্ত নেওয়া শক্ত হতে পারে। এক মাস কেটে যাওয়ার পরেও, গর্ভাবস্থা বন্ধ করার কয়েকটি উপায় রয়েছে।


 এর মধ্যে জরুরী গর্ভনিরোধক বড়ি ব্যবহার করাও অন্তর্ভুক্ত যা সহবাস করার পরে ৪৮ থেকে ৭২ ঘন্টার মধ্যে গ্রহণ করা উচিত।


 ‘মর্নিং আফটার’ পিল হিসাবেও পরিচিত, এটি নিয়মিত জন্ম নিয়ন্ত্রক পদ্ধতিগুলির চেয়ে কম কার্যকর। তবে এই পদ্ধতিটি কার্যকর প্রমাণিত হতে পারে না যদি আপনি সহবাসের ১ মাস পরে কীভাবে গর্ভাবস্থা এড়ানো যায় তা চিন্তা করছেন।


সার্জিকাল গর্ভপাত না করে কীভাবে গর্ভাবস্থা বন্ধ করা যায়?


কোনও ধরণের গর্ভপাত না করে গর্ভাবস্থা বন্ধ করার কোনও উপায় নেই। তবে কিছু পদ্ধতি রয়েছে যা অস্ত্রোপচারের হস্তক্ষেপের প্রয়োজন ছাড়াই গর্ভাবস্থা বন্ধ করতে কার্যকর প্রমাণিত হতে পারে। এইগুলো হল:


১. মেডিকেল গর্ভপাত

২. ভেষজ গর্ভপাত


৩. রাসায়নিক পদ্ধতি


৪. প্রোস্টাগ্ল্যান্ডিন পদ্ধতি


৫. স্যালাইন জল পদ্ধতি


আমার ৩ মূস আগে বিয়ে হয় physical  হওয়ার ৩৮ ঘন্টা পর জন্ম নিয়ন্ত্রক পিল গ্রহণ করি এর পর আমার মাসিক হয়।  প্রতিবারই আমি ৭২ ঘন্টা পিল গ্রহণ করেছি। করার পর পর ই। 


আমার মাসিল ৩-৪ দিন আগে হপয়ার কথা কিন্তু হচ্ছে না।মাসিক রাস্তা দিয়ে কালো সবুজ রং এর কি জেনো বের হচ্ছে। এখন আমি কি করবো। গভবতী হলে কিভাবে বাচ্চা নষ্ট করবো এর ওষুধ এর নাম বলবেন দয়া করে।


 আমার প্রতি মাসের ৩-৫ তারিখের মধ্যে মাসিক হয়। কিন্তু এ মাসে মাসিক হয় নাই। প্রেগন্যান্সিসি টেস্ট করালে দুই দাগ উঠেছে। এ মুহুরতে আমরা বাচ্চা নিতে চাচ্ছিনা। এখন কি ঔষধ খেলে মাসিক শুরু হবে। জানালে অনেক উপকৃত হব।

Health City Life এর সর্বশেষ আপডেট পেতে Google News অনুসরণ করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published.