স্তন দ্রুত বড় করার সহজ উপায়,মেয়েদের স্তন বড় করার উপায় কি?,মেয়েদের স্তন বা বুকের দুধ বড় করার সহজ ঘরোয়া উপায়

গোপন সমস্যা সমাধান স্বাস্থ্য

Health City Life এর সর্বশেষ আপডেট পেতে Google News অনুসরণ করুন





 যুবতীদের এখন প্রাকৃতিকভাবেই ব্রেস্ট বড় করা যায়,  আর এতে প্রয়োজন হয়না সার্জারীর। সাধারণত ৩৪ থেকে ৩৬ সাইজই হলো প্রত্যেক যুবতীদের আবেদনময়ী হওয়ার স্ট্যান্ডার্ড ব্রেস্ট সাইজ। 


তবে অনেকের ব্রেস্ট আকারে অনেক ছোট হয়, যা দেখতে দৃষ্টিকটু লাগে অথচ প্রকৃত সৌন্দর্য ফোটাতে সঠিক মাপের সুডৌল স্তনের জুড়ি নেই। 

আবার, বড় ব্রেস্ট যুবতীদের আরো আবেদনময়ী ও আকর্ষনীয় করে তোলে। আজকাল বেশিরভাগ যুবতীরা স্তনের গুরুত্ব বোঝেন, তবে ততোটা নয়।


বর্ততমানে অনেকেই নিজের স্তন বড়, সুন্দর ও পুরুষের নিকট নিজেকে আবেদনময়ী করার নিয়ম খুঁজছেন কিংবা অনেকে অনেক পন্থা ইতিমধ্যেই অবলম্বন করে ফেলেছেন। 


আমাদের এ লেখাটি তাদের জন্য যাদের ব্রেস্টের সাইজ ৩৪ থেকে ৩৬ এর নিচে। নিচে প্রাকৃতিকভাবে ব্রেস্ট বড় করার কতগুলো উপায় নিয়ে আলোচনা করা হলো:


এক. আপনার হাত দুটি ঘষে উষ্ণ করে দুই হাত স্তনের নিচে হালকা আলতো চেপে ধরে ডানহাত ঘড়ির কাটার দিকে আর বাম হাতে ঘড়ির কাটার উল্টা দিকের মত ঘুরিয়ে ঘুরিয়ে ম্যাসাজ করুন।


প্রতিদিন সকালে ঘুম থেকে ওঠার সময় আর রাতে ঘুমাতে যাওয়ার আগে ১০ থেকে ১৫ মিনিট এভাবে ১০০ থেকে ৩০০ বার ঘুরিয়ে ঘুরিয়ে ম্যাসাজ করারর অভ্যাস করুন। এর ফলে মাস খানেকের পর আপনি ফলাফল পজেটিভ পাবেন। এতে আপনার স্তনের সাইজ পূর্বের তুলনায় কিছুটা বৃদ্ধি পেতে পারে।


দুই. আপনাকে এজন্য সর্বদা পুষ্টিকর ও স্বাস্থ্যসম্মত খাবার খেতে হবে। কখনো ভাসি ও কিংবা অনেক্ষণ রেখে দেয়া খাবার খাওয়া থেকে বিরত থাকবেন। আর  রাতে অনেক ঘুমাতে হবে।

Health City Life এর সর্বশেষ আপডেট পেতে Google News অনুসরণ করুন


তিন. যুবতী মেয়েদের জন্য ব্রেস্টের কিছু স্পেশাল ব্যায়াম আছে যেমন- বেঞ্চ প্রেস, বাটারফ্লাই প্রেস, পুশ-আপ (বুকডাউন) নিয়মিত এগুলো করে স্তনের টিস্যুতে ব্লাড-ফ্লো বাড়াতে হবে। 


আর এতে বুকের পেশিগুলো সঠিক শেপে এসে স্তনকে সুগঠিত করবে। এটা অনেকটা বডিবিল্ডাররা যেভাবে শরীরের পেশি বৃদ্ধি করে, সেভাবে কাজ করবে। দিনে বেশ কয়েকবার দুইহাত দুইদিকে প্রসারিত করে আবার এক করুন।


চার. বাথরুমে স্নান করার সময় হাত দিয়ে ব্রেস্টের চারপাশ ১০ থেকে ১৫ মিনিট ম্যাসাজ করবেন। 


তবে চাইলে ম্যাসাজের সময় হালকা গরম করে সামান্য সরিষার তেল কিংবা খাঁটি মধু ব্যবহার করতে পারেন। আপনার শরীর যদি রোগা হয় তাহলে ২/৩ মাস সুষম খাদ্য খেয়ে শরীরটাকে সতেজ ও স্বাভাবিক করে নিন। 


তাছাড়াও, দুধ, ডিম, ফল একটু বেশি খেলে উপকার পাবেন। চিন্তামুক্ত থাকার চেষ্টা করবেন।  এতে শরীর বাড়ার সাথে সাথে আপনার স্তনের আকৃতিও বড় হবে।


পাঁচ. আপনি যখন থেকে ব্রেস্ট বড় করার জন্য ব্যায়াম ও ম্যাসাজ শুরু করবেন ঠিক তখন থেকে  পূর্বে যদি ম্যাসাজ শুরুর আগে থেকে ব্রেস্ট এনলার্জিং ক্রিম ব্যবহার করে থাকেন তবে ওই ব্যবহৃত ব্রেস্ট এনলার্জিং ক্রিম ব্যবহার করা বন্ধ করে দিন। 


তার কারণ, এ ধরণের ক্রিম সাধারণত কোন কাজে আসে না। এছাড়া ব্রেস্ট বড় করার জন্য কোন পিল সেবন করবেন না। এগুলোর পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া রয়েছে। ব্রেস্ট ক্যান্সার পর্যন্ত হতে পারে এসব ক্রিম বা পিল ব্যাবহার করার ফলে।


ছয়. সবসময় সঠিক মাপের/সাইজের ব্রা ব্যবহার করতে হবে। না হলে এর নেতিবাচক প্রভাবে আপনার ব্রেস্ট ঝুলে যেতে পারে।


সাত. এক কিংবা দুই সপ্তাহ অন্তর অন্তর নিজের ব্রেস্ট মাপুন, টাইট জামাকাপড় পরিধান করুন এবং সঠিক সাইজের কাপ সাইজের ব্রা পরিধান করুন। 


এছাড়া ব্রেস্ট বড় করার জন্য ব্রেস্ট ইমপ্লান্ট সার্জারী রয়েছে। এটি ন্যাচারাল নয় বলে না করাই ভালো এবং তবে বর্তমানে এ পদ্ধতিটা বেশ ব্যয়বহুলও শারীরিক পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া থাকার বড় ধরণের সম্ভাবনা রয়েছে।

Health City Life এর সর্বশেষ আপডেট পেতে Google News অনুসরণ করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published.